কেন তাদের ভালবাসি

ভালবাসা দিবস হাজির হওয়ার প্রেক্ষিতে পোস্ট দিচ্ছি বিষয়টা তেমন না। অবশ্য এ ব্যাখ্যা কেউ দাবিও করছে না। বেশ কয়েকদিন ধরেই মনে হচ্ছে কাদের বাসি কেন বাসি বিষয়টা গুরুত্ব পাওয়ার দাবি রাখে।
সে বিষয়ে ভাবতে গিয়ে দেখি যারা আমার উপকার করেছে নানাভাবে কাজে লাগে তাদের নামও চলে আসছে। সিদ্ধান্ত নিলাম তাদের এড়িয়ে যাব এই পোস্টে। যেমন বাপ মাকে না বাসার কোন কারণ নাই। সেটা এখানে উল্লেখ করারও কিছু নাই।
Nadia Islam : নাদিয়া ইসলাম খুবই পছন্দের একজন মানুষ। অবশ্য লোকজন উনাকে নারীবাদী হিসেবে দেখে। তবে দেশীয় নারীবাদীদের অনেকের কিছু সমস্যা আছে। রাজীব মীর স্যারের বিরুদ্ধে যৌন নিপীড়নের অভিযোগ থাকায় যখন গুটিকয়েক নারীবাদী তার অসুস্থতায় বিকৃত আনন্দ উপভোগ করেছেন সে সময় নাদিয়া ইসলাম আওয়াজ তুলেছেন। এরকম আরো অনেক ইস্যুতে উনাকে খুব ভাল পেয়েছি।

Susupto Pathok : দেশ নিয়া নেতাদের ভাঁওতাবাজি সহ জাতীয়তাবাদের নামে ভূয়া জিনিস কপচানোকে যেভাবে ন্যাংটা করে দিয়ে ভাবনাকে এলোমেলো করে দেন তিনি সুষুপ্ত পাঠক। ধর্ম নিয়ে মোল্লাদের নানান কপচানির বিপরীতে কলম হাতে লেগে থাকার জন্যে উনাকে প্রথম চিনি। আমার দেশকে জানার বোঝার একটা দরজা হলো এই ভাইয়াটা।
Masud Rana : রাষ্ট্র, দেশ, জাতি নিয়ে চিন্তার নতুন দ্বার খুলে দিয়েছেন মাসুদ রানা স্যার। জাতির সংকটের গভীরে গিয়ে কোথায় কি সমস্যা সেটা ইতিহাস সচেতনার সাথে তুলে ধরার কারণে উনাকে ভাল লাগে বেশি। তারপর ভাষা বিষয়ে গভীর দক্ষতার কারণেও উনি ব্যতিক্রম।
Ar Raji : মেরুদন্ড খুব বেশি মানুষের থাকে না সেটা প্রথম জানি স্যারকে দেখে। সেই দুই বছর আগে দেখা স্যার যে পরিবেশে কথা বলছেন সেটা বদলেছে উত্তর মেরুও দক্ষিণ মেরুর দূরত্বের মতনই। তাতে কি? স্যারকে আমি ভালবেসেছি স্বৈরাচার বিরোধী আন্দোলনের দিনগুলোর অবস্থান থেকে বর্তমানকে দেখে বদলানোর চিন্তা করতে দেখে।
Shahidul Alam: উনাকে আমি চিনতামই না। যেইনা জেলে গেলেন জেল থেকে ফিরলেন তাকে আমি ভালবেসেছি। এ বয়সেও এমন লড়াকু তিনি বিষয়টা দেখে হিংসেও হয়।
কোটা ও সড়ক আন্দোলনে যারা মার খেয়েও দাড়িয়েছিল : একটা সময় ভাবতাম দেশটা গেল। কোথাও কেউ নেই বলার। সবাই চাটুকারিতা আর স্বার্থ হাসিল করার ধান্দায় আছে। সে জায়গা থেকে এই মানুষগুলা শতবাঁধার পরও যেভাবে দাড়িয়েছিল তাতে আমার নজরুলকে খুব প্রাসঙ্গিক মনে হয়েছে। যেমন আমাদের A Pm Suhel Muntasir Mahmud ভাইদের খুব ভাল পাই।
রাষ্ট্রচিন্তা ও সমমনা ভাবনার সাথে জড়িতরা : এ তালিকাতে আছেন Qadaruddin Shishir , Sarwar TusherHasnat QuaiyumRakhal Raha অালতাফ পারভেজসহ পরিচিত আরো অনেকেই। এ সময় এসে মেরুদন্ডতে সমস্যা খুব বেশি। সমস্যাকে এড়িয়ে কথা বলে যাওয়া দুর্দান্ত ব্যাপার।
ফিলিস্তিন, কাশ্মীর সহ দুনিয়ার নানা প্রান্তে স্বাধীনতাকামীরা : তাদের আমি ভালবাসি। তাদের চাওয়াকে যেভাবে বুলেট দিয়ে দমন করা হয় তার প্রতিবাদে কিছু করার সুযোগ আমার নাই। জীবনকে তুচ্ছ করে দেয়ার যে হিম্মত সেটা এ দুনিয়ায় কয়টা লোকের মধ্যে পাওয়া যাবে?
Garga Chatterjee ও বাংলা পক্ষ Bangla Pokkho : পশ্চিমবাংলায় বাংলা ও বাঙালির জন্যে কাজ করা এই মানুষগুলোকে অবশ্য না বাসার কোন কারণ নাই। ন্যায্য অধিকার আদায়ের এই সংগ্রামে সব সময় সমর্থন থাকবে।
Joya Ahamed : জয়ার সাথে আমার বহুদিনের পরিচয়। ফেসবুকের প্রথমদিকের প্রেমের মতন আর কি। জয়া মানে একটা অন্য জানালা। একটা অন্য দুনিয়া। জয়া মানেই গল্প আর গল্প। শত রকমের গল্প। আমি অবশ্য গল্পের জন্যে তাকে ভালবাসি না। এটা ভালবাসা হয়া গেছে। স্বাভাবিকভাবেই এই ভালবাসার কোন নাম নাই। অবশ্য আমি ওরে আপুও ডাকি।
Mosaddeqa Bristi : এই মানুষটার ওয়ালে সুন্দর সুন্দর ছবি দেখে আমি তাকে ভালবেসেছি। অনেকে পুরুষের চোখে নারী কেমন শীর্ষক প্রতিবাদী পোস্ট দেয়। এই মানুষটাকে আমি যেভাবে দেখি সেটাকে এভাবে উপেক্ষা করা খুবই খারাপ কাজ। বিন্দাস বৃষ্টি আর বিন্দাস নেই। নাম বদলে মোসাদ্দেকা হয়ে গেছে। কিন্তু তার ছবিতে আমি যে সৌন্দর্য ভাললাগা খুঁজে পাই সেটা বদলায় নাই। অনেকে আজ বসন্তের কথা বলছে। কিন্তু প্রকৃতিতে বসন্ত নাই। অনেকটা এরকম শ্রাবণ মাস আসছে কিন্তু দেশে বৃষ্টি না থাকার পরও মানুষ ফেসবুকে পোস্ট করতেসে, বসন্তের প্রথম বৃষ্টিতে ভিজলাম। কিন্তু আমার এরকম ভূয়া পোস্ট এর দরকার নাই। আমি বৃষ্টিতে সারা বছর মুগ্ধ আছি।
Nas Daily: সে বস মানুষ। দুনিয়া ঘুরে বেড়ায়। দুনিয়া ঘুরে বলে বাসি ঠিক না। বহু গান্ডুদের মত সে শুধু ঘুরে না। ঘুরার পাশাপাশি তার চিন্তা গুলা এক মিনিটে তুলে ধরে।
SAMI: স্যামি সম্ভবত ইউরোপিয়ান । তার প্রেমিকাও সেখানের। তাদের প্রেম নিয়া খুব ভাল ভিডিও দেয়। প্রেম প্রেমের মতনই হওয়া উচিত। তারা বাপ দাদার কাটিয়ে আসা জীবনের বাইরে গিয়ে তারা দুনিয়াডারে দেখে এটা খুবই সৌন্দর্য।
সবশেষ অতীতের কাউকে যদি বাসার কথা বলি তাহলে বাসি ইবনে বতুতাসহ সকল পর্যটককে, দেশে দেশে স্বৈরাচার হটানোর সংগ্রামে জীবন দেয়া জনতা ও আমাদের দুখু মিয়া মানে আসানসোলের কাজী নজরুলসহ তার সমমনা চিন্তার লোকদের। সর্বশেষ এ তালিকয়া যুক্ত হলো ভূপেন হাজারিকার পরিবার। যারা নাগরিকত্ব বিলের প্রতিবাদে ভারতরত্ন পদক নিতে অস্বীকৃতি জানালো।
যাদের জন্যে এই দুনিয়াতে থাকতে ইচ্ছে করে।
সকলের জন্যে ভালবাসা। কাউরে ভালবাসা বঞ্চিত করা ঠিক হবে না। কিন্তু কিছু মানুষকে কেন বাসি জানি। কারণটা বলতেই এই স্ট্যাটাস।


Post a Comment

0 Comments