আত্মপ্রেমের আলাপ To know about Narcissism

ফেসবুক, ইন্সটাগ্রামসহ অন্যান্য সোশ্যাল মিডিয়া নিজের প্রতি ভালোবাসা (আত্মপ্রেম) বা নার্সিসিজম (narcissism) বাড়াচ্ছে কিনা এ বিষয়ে সংবাদ করেছে বিবিসি (Bbc)। কাউকে আত্ম-প্রেম বা নার্সিসিজমের রোগী আখ্যা দিতে হলে তার মধ্যে নিচের লক্ষণগুলোর অন্তত পাঁচটি থাকতে হবে উল্লেখ করা হয়েছে।
নিজের গুরুত্ব সম্বন্ধে তার অতি উচ্চ ধারণা থাকে। সাফল্য ও ক্ষমতা নিয়ে তার অলীক কল্পনা করে সে। নিজেকে বিশেষ কেউ এবং অতুলনীয় বলে বিশ্বাস করে। নিজেকে উচ্ছ্বসিত মাত্রায় প্রশংসা করার প্রবণতা কাজ করে। নিজের সম্পর্কে অধিকারবোধ সম্পর্কে সচেতন। অন্যদের ব্যবহার করে নিজের স্বার্থ হাসিল করার চেষ্টা করে থাকে। অন্যদের অনুভূতির প্রতি অবজ্ঞার মনোভাব প্রদর্শন করে।অন্যদের প্রতি ঈর্ষাপরায়ণ হগয়। উদ্ধত আচরণ এবং নিজেকে বড়াই করার প্রবণতা থাকে তার মধ্যে।
কারণ গুলো নিয়ে ভাবলাম। নিজেরে এগুলা দিয়ে হিসাব করলাম। এর মধ্যে কয়েকটা খারিজ করি। কারো গুরুত্ব পাওয়া না পাওয়া দিয়ে বিশেষ পেট ভরে না আমার। গুণলাম না আর কি। তাছাড়া এটা হাতিঘোড়া ইন্স্যুরেন্স (Insurance) ও না। আর সাফল্য বা ক্ষমতার ধারণাতে বিশ্বাসই করি না।
অবশ্য বিশেষ কেউ ভাবার একটা ব্যাপার আছে। এই যে মেরুদন্ড বন্ধক দেয়া পদগুলোরে খারিজ করে দিতে পারি তাতেই মনে হয় বিশেষ লোক। প্রশংসার ধারণাও স্বীকার করি না। অধিকারবোধের কথা কি বলল বুঝিই নাই। অন্যদের ব্যবহার করার সাথে তেল মারার সম্পর্ক থাকায় এটাতে পুরো ব্যর্থ। বড় পদওয়ালা,ভণ্ডদের অনুভূতির প্রতি সম্মান দেখানো কষ্টের। ঈর্ষা করা আমারে দিয়ে সম্ভব না। কিছু পদকে, গুণকে মহান ভাবলে সেগুলা না ঈর্ষা করে মানুষ। কিন্তু এমন কিছুই নাই যা আমারে ঈর্ষা করতে বাধ্য করবে। আর থাকলো উদ্ধত আচরণ। সেটা অবশ্য জায়গা মতই করি। বড়াই করার কিছুই তো নাই। ছোটলোকদের অনেক কিছুই থাকে। সেটা নিয়া বড়াই করে।
অবশ্য ফেসবুকে দাঁত বের করে ছবিপ্রদর্শনটা বাড়াবাড়ি রকমের আত্মপ্রেম ও দৃষ্টি আকর্ষণের চেষ্টাও বটে। কিন্তু ৫৭ ধারা জারি অবস্থায় আর কাজটা কি দেশে?

তবে একথা বলতেই হয় নার্সিসিজম (narcissism) বৃদ্দি পাচ্ছে। বিশেষ করে সামাজিক যোযোযোগ মাধ্যম চালু হওয়ার পর মানুষের মধ্যে আত্মপ্রেম (self-love) বেড়ে চলেছে এটিই বর্তমানে ‍দুশ্চিন্তার কারণ হয়ে দাড়িয়েছে। এই জায়গা থেকে বের হওয়া বেশ কঠিন।

Post a Comment

0 Comments